সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন

পশ্চিমবঙ্গে ভেঙে পড়েছে চিকিৎসা পরিসেবা

  • সর্বশেষ আপডেট রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯, ৯.০৬ এএম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:

চিকিৎসক পেটানোর প্রতিবাদে আন্দোলনের জেরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে স্বাস্থ্য পরিসেবা পুরোপুরি ভেঙে পড়েছে। এ নিয়ে টানা পাঁচ দিন রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। ফলে হাজার হাজার রোগী সীমাহীন ভোগান্তিতে পড়েছে। গত কয়েক দিনে বেশ কয়েকজন রোগী মারা গেছেন। গতকাল শনিবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী বিক্ষুব্ধদের বৈঠকে ডাকলে তা প্রত্যাখ্যান করা হয়। চিকিৎসকদের দাবি মুখ্যমন্ত্রীকে তাদের কাছে এসে ক্ষমা চাইতে হবে।

এদিকে এ আন্দোলনের ঢেউ ছড়িয়ে পড়েছে ভারতজুড়ে। আগামীকাল সোমবার দেশটির বিভিন্ন রাজ্যের হাসপাতালে ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। এ ছাড়া দ্রুত সমস্যার সমাধান না করলে দেশের সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসাসেবা বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (আইএমএ)।

গতকাল মমতা ব্যানার্জী ক্ষুব্ধ চিকিৎসকদের বৈঠকে বসতে রাজ্য সচিবালয়ে ডাকেন। কিন্তু তার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করে আন্দোলনকারীরা বলেন, মমতাকেই তাদের কাছে আসতে হবে। এ সময় মমতা নানাভাবে তাদের বৈঠকে আনার চেষ্টা করেন। কিন্তু বরফ গলেনি। পরে সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে মমতা সুর আরও নরম করে তাদের কাজ শুরুর আহ্বান জানান। কিন্তু রাত পর্যন্ত পরিস্থিতির কোনো উন্নতি হয়নি।

এদিকে গতকাল রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কলকাতায় আসা রোগী ও জেলা হাসপাতালের রোগী ও তাদের স্বজনরা চরম ভোগান্তিতে পড়েন। তারা বিভিন্ন হাসপাতালে দৌড়াদৌড়ি করেও কেউ চিকিৎসাসেবা পাননি। অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন। অনেক রোগী বাঁচার আকুতি জানান। এদিকে চিকিৎসকদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন রাজ্যের বিশিষ্টজন ও রাজনৈতিক নেতারা। তারা চিকিৎসকের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দাবি জানান।

এদিকে আগামীকাল দেশজুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে আইএমএ। একমাত্র জরুরি পরিসেবা বিভাগ ছাড়া ওই দিন হাসপাতালগুলোতে বাকি সব পরিসেবা বন্ধ থাকবে। এ ছাড়া গতকাল দেশটির রাজধানী দিল্লির ১৪টি সরকারি হাসপাতালে ধর্মঘট পালিত হয়।

এদিন দিল্লি, আসাম, মুম্বাই, কেরালা থেকে উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশসহ বিভিন্ন রাজ্যের চিকিৎসকরা কলকাতার ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে রাস্তায় নামেন। বিভিন্ন শহরে কর্মবিরতি পালন করেন তারা। মহারাষ্ট্র রাজ্যের ২৬টি সরকারি হাসপাতালের প্রায় ৪৫০০ জন চিকিৎসক যোগ দেননি। হায়দরাবাদে বিক্ষোভ অবস্থান পালিত হয়। মধ্যপ্রদেশেও কাজ বন্ধ থাকে। উত্তরপ্রদেশ ও পাঞ্জাবে চিকিৎসকরা কালো ব্যাজ পরে রোগী দেখেন।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

themebaalokitokant1852550985
©2019 All rights reserved Alokitokantho
Devoloped by alokito kantho.com