আজ ৮ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে এপ্রিল, ২০২৪ ইং

দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাটে পন্টুন থেকে পড়ে যাত্রীর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাটে পন্টুন থেকে পদ্মা নদীতে পড়ে মো. ফিরোজ শেখ নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।
নিহত ফিরোজ শেখ (২৮) মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার শিবালয় ৩ নং ট্রাক টার্মিনালের পাশে আজগর আলী শেখে’র ছেলে। সে সেলফি পরিবহনে শ্রমিক ছিলো ।
শুক্রবার (২৯ মার্চ) সকাল সোয়া ৭টার দিকে দৌলতদিয়া লঞ্চঘাটে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
বিষয়টি দৌলতদিয়া নৌ পুলিশের ইনচার্জ এসআই মো. ফরিদ উদ্দিন নিশ্চিত করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শরা জানান, সকাল সোয়া ৭টার দিকে পিছন থেকে ওই যুবক লঞ্চে পার হওয়ার জন্য টিকিট কেটে পন্টুনে আসে। পন্টুনের পাশে বড়শি দিয়ে মাছ শিকার করা দেখতে যেয়ে নদীতে পড়ে যায়। সংবাদ পেয়ে ৯টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে তার মৃত্যুদেহ উদ্ধার করে।
নিহতের বাবা আজগর আলী শেখ জানান, আমার ছেলের ছোটবেলা থেকেই মৃগী রোগের সমস্যা ছিল। গোয়ালন্দে আমার আত্মীয় থাকায় সে গতকাল রাতে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলো । সকালে বাড়ী ফেরার সময় দৌলতদিয়া লঞ্চ ঘাটের পন্টনে লঞ্চের জন্য অপেক্ষা করার সময় মৃগী রোগ উঠলে নদীতে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে তিনি ধারনা করছি।
গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মো. সাবেকুল ইসলাম জানান সকাল সাড়ে ৭টার দিকে সংবাদ পেয়ে সার্ভিসের টিম দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। প্রায় ঘন্টা ব্যাপী অভিযান চালিয়ে ৯ টার দিকে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মরদেহ দৌলতদিয়া নৌ পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।
দৌলতদিয়া নৌ পুলিশের ইনচার্জ এসআই মো. ফরিদ উদ্দিন জানান, আমরা সোয়া ৭টার দিকে সংবাদ পেয়ে লঞ্চঘাটে পন্টুন থেকে এক যুবক নদীতে পড়ে গেছে। সংবাদ পেয়ে দ্রুত ফায়ার স্টেশনে জানাই। সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ঘটনাস্তলে যেয়ে তাকে মৃত্যু উদ্ধার করে। মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট শেষ হয়েছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ