আজ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৩শে মে, ২০২৪ ইং

মানিকগঞ্জ মিথ্যা অভিযোগে মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি : মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার সন্ত্রাসী ও অপরাধের প্রশ্রয়দাতা, মসজিদ -মন্দিরে হামলাকারী, ভূমিদস্যু আব্দুর রহিম খান এর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে মামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন উপজেলার সর্বস্তরের জনগণ। রহিম খান জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও শিবালয় উপজেলার সাবেক চেয়ার

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার টেপড়া বাসস্ট্যান্ডে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন, মানিকগঞ্জ জেলা আ’লীগের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক ফাহিম রহমান খান রনি, উপজেলা আওয়ামী সদস্য ও আরুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোনায়েম মুন্তাকিম খান অনিক, সদস্য আব্দুর রহমান মৃধা, উলাইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি, মোঃ মজিদ, অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা বাবুল হোসেন, বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম ও আকতার হোসেন আনন্দ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করার জন্যই রহিম খান মিথ্যা নাটক তৈরি করেছে। তাই সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম খানকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তার এমন কর্মকাণ্ডের জন্য জনগণের কাছে ক্ষমা চাওয়ার দাবি জানান তারা ।

তারা আরও বলেন, শিবালয় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউর রহমান খানসহ তার পরিবারে পনের জন মুক্তিযোদ্ধা রয়েছে। স্থানীয়ভাবে তাদের সুনাম রয়েছে। তার এবং তার পরিবারের সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য সম্প্রতি রহিম খানের গাড়িতে ককটেল নিক্ষেপ ও গুলিবর্ষণ এর অভিযোগ তুলে থানায় মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে। আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করার জন্যই তিনি এ মিথ্যা নাটক তৈরি করেন। রহিম খান নিরোপরাধ ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলে মামলার ভয় দেখিয়ে হয়রানি করে জমি জবরদখল ও বিভ্রান্তিকর মিথ্যা হামলার অভিযোগে মামলা অনতিবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহার করে এবং সঠিক তদন্তের মাধ্যমে মামলাবাজ আবদুর রহিম খানকে আইনের আওতায় এনে গ্রামের নিরহ ও নিরোপরাধ ব্যক্তিদের হয়রানি থেকে মুক্ত করতে আইন শৃংঙ্খলা বাহিনীর প্রতি জোর দাবি জানান তারা। আব্দুর রহিম খান জেলা আ’লীগ সহ-সভাপতি পরিচয় বহন করে সংগঠন বিরোধী কার্যকলাপে জড়িয়ে পরায় দলের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করে আসছে এবং যেই দল যখন ক্ষমতায় থাকে সেই দলের সুবিধা নিয়ে এলাকার নিরিহ লোকদের ভয়-ভীতি দেখিয়ে বিভিন্নভাবে হয়রানি করেন। এই হয়রানি থেকে এলাকার নিরীহ লোকজন মুক্তি চায়।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ