আজ ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে জুন, ২০২৪ ইং

পলাশবাড়ীর পাপিয়া হত্যা মামলার ৩ আসামি নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় পারিবারিক কলহের জেরে পাপিয়া বেগম (৪৫) নামে এক নারীকে হত্যা মামলার তিন আসামিকে আত্মগোপনে থাকা অবস্থায় নারায়ণগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

শনিবার (১ জুন) রাতে র‌্যাব-১৩, সিপিসি-৩, গাইবান্ধা ও র‌্যাব-১১, সিপিসি-১, নারায়ণগঞ্জ এর যৌথ অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা মডেল থানার চর কাশিপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

আজ (রবিবার, ২ জুন) সকালে র‌্যাব-১৩ অধিনায়কের পক্ষে উপ-পরিচালক (মিডিয়া) স্কোয়াড্রন লিডার মাহমুদ বশির আহমেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মাধুকরকে এ তথ্য জানানো হয়।

গ্রেপ্তাররা হলেন- পলাশবাড়ী উপজেলার মনোহরপুর ইউনিয়নের বিরামেরভিটা গ্রামের মো. চাঁন মিয়া ছেলে মো. রাব্বি মিয়া (২৬) ও মো. পাপুল মিয়া (৩০) এবং পাপুল মিয়ার স্ত্রী মোছা. ইসমোতারা বেগম (২৬)।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‍্যাব জানায়, গ্রেপ্তার আসামিদের সাথে ভিকটিম পাপিয়া বেগমের জমিজমা নিয়ে বিরোধে পারিবারিক কলহ চলছিল। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৮ মে আসামীরা পাপিয়াকে ঘটনাস্থলে পেয়ে আক্রমণ করে। এসময় তারা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে লোহার রড, ধারালো ছোড়া, বাঁশের লাঠি এবং দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে এবং গলার নীচে ধারালো ছুরি দিয়ে শ্বাসনালী কেটে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। স্থানীয়রা পাপিয়াকে চিকিৎসার জন্য গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পাপিয়ার ভাই মো. আরিফুজ্জামান বাদী হয়ে পলাশবাড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলার প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১৩, সিপিসি-৩, গাইবান্ধা ও র‍্যাব-১১, সিপিসি-১, নারায়ণগঞ্জ ছায়াতদন্ত আরম্ভ করে এবং নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লা মডেল থানার চর কাশিপুর এলাকায় শনিবার রাত ১১টার দিকে যৌথ অভিযান পরিচালনা করে মামলার এজাহারনামী পলাতক আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

র‌্যাব জানায়, গ্রেফতারকৃতরা চাঞ্চল্যকর পাপিয়া হত্যা মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামী বলে স্বীকার করেছে। পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রম গ্রহণের জন্য তাদের গাইবান্ধার পলাশবাড়ী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ