আজ ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২১শে জুন, ২০২৪ ইং

খামারবাড়ি হতে কোটি টাকার জেনারেটর চুরি, প্রতিবাদে মানববন্ধন

এম জি রাব্বুল ইসলাম পাপ্পু, কুড়িগ্রাম জেলা  প্রতিনিধি : কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর (খামারবাড়ি) থেকে কোটি টাকা মূল্যের জেনারেটর চুরির ঘটনায় মানববন্ধন করেছে কৃষকরা। 
মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি)  সকাল ১১টা হতে কুড়িগ্রাম-চিলমারী সড়কে  ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচ শতাধিক কৃষক।
মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন-কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রব সরকার রাজু, কুড়িগ্রাম কৃষকলীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট মমিনুর রহমান মমিন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল কাদের, কুড়িগ্রাম পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলর সহিরন বেগম, চাষী নূরনবী সরকার, কৃষক শামীম আহমেদ, রেজাউল করিম রেজা প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে চুরি যাওয়া জেনারেটর পুনরুদ্ধার না করলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন।
জানা যায়,২০২২ সালের জুন মাসে কুড়িগ্রাম অফিসের সাবেক উপপরিচালক আব্দুর রশিদ (বর্তমানে অবসরে), সাবেক ক্যাশিয়ার আব্দুল আজিজসহ কয়েকজন কর্মচারী যোগসাজশে জেনারেটরটি বিক্রি করে দেন। প্রমাণ মেটাতে অফিসের সিসি ক্যামেরা বন্ধ রাখাসহ জেনারেটরের নথিপত্র সম্বলিত ফাইলও সরিয়ে ফেলা হয়। জেনারেটরের কক্ষ থেকে আলামত আড়াল করতে কক্ষটি একজন কর্মচারীকে বসবাসের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়। বিষয়টি প্রকাশ হলে পরিস্থিতি সামাল দিতে অরেকটি ছোট জেনারেটর রেখে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। এ নিয়ে কয়েকজন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ও সংক্ষুদ্ধ কৃষক পরবর্তী উপপরিচালক ও জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ দেন। তবে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার বদলে অভিযোগকারীদের কুড়িগ্রাম থেকে বদলি করা হয়। তদন্তে জেনারেটর চুরির সত্যতা মিললেও শেষ পর্যন্ত বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়া হয়েছে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে পড়ে জেলার কৃষকরা।
এ বিষয়ে কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বিপ্লব কুমার মোহন্ত বলেন,আমি যোগদানের পূর্বেই জেনারেটরটি চুরি হওয়ার ঘটনাটি ঘটেছে। এ নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। অধিদপ্তর বিষয়টি সরাসরি দেখছে।

Comments are closed.

     এই বিভাগের আরও সংবাদ